একদম সত্য ঘটনা অবলম্বনে, দেখুন ভিডিওটি…

একদম সত্য ঘটনা অবলম্বনে, দেখুন ভিডিওটি…একদম সত্য ঘটনা অবলম্বনে, দেখুন ভিডিওটি…
বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল এর। এর সাথে আমরা কোন ভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এবং আমাদের পেইজ কোন প্রকার দায় নিবেনা।ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে।
প্রতিদিন ঘটে যাওয়া নানা রকম ঘটনা আপনাদের মাঝে তুলে ধরা এবং সামাজিক সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য।
একদম সত্য ঘটনা অবলম্বনে, দেখুন ভিডিওটি…একদম সত্য ঘটনা অবলম্বনে, দেখুন ভিডিওটি…

অন্যরা যা পড়ছেঃ

অভিনব উপায়ে ৫ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করলেন এক যুবতী। রেডিও পোস্টে এই ঘটনার বিবরণও দিয়েছেন তিনি। এরপরই বিশ্বজুরে পোস্টটি ভাইরাল। কিন্তু কী এমন করলেন তিনি?

পোস্টটিতে যুবতী লিখেছেন, সম্প্রতি তিনি জানতে পেরেছেন পাচ বছরের সম্পর্কে তিনি প্রতারিত হয়েছেন প্রেমিকের দ্বারা। এও জানতে পেরেছেন, তাঁর অনুপস্থিতিতে বাড়িতে ওই যুবক তাঁর প্রাক্তন প্রেমিকাকে নিয়ে আসেন। এমনকী তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কও তৈরি হয়েছে নতুন করে। এরপরই তিনি সিদ্ধান্ত নেন প্রেমিককে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার।

দিন কয়েক আগে ওই যুবতী আগে থেকে না জানিয়েই প্রেমিকের বাড়িতে হাজির হন। নিশ্বঃব্দে বাড়িতে ঢুকে প্রেমিকের জন্য ব্রেকফাস্ট তৈরি করেন এবং কিচেনে তাঁর(প্রেমিকের) পছন্দের একটি ভিডিও গেমও রেখে আসেন। এরপরই ওই বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে যান তিনি।

অপেক্ষা করতে থাকেন নিজের গাড়িতে। কার্যত সেখানে বসেই প্রেমিকের সঙ্গে সমস্ত রকম সম্পর্ক ছিন্ন করেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে নিজেকে সরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি ফোন ও অন্যান্য জায়গায় ওই যুবককে ব্লক করে দেন।

এমনকী নিজের আত্মীয়দেরকেও জানিয়ে দেন কোনও ভাবে যেন তাঁর প্রেমিকের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা না হয়। সবশেষে ওই শহর ছেড়ে অন্যত্র চাকরি নিয়ে চলে যান তিনি। বদলে দেন নিজের নম্বরটিও।

গোটা ঘটনার কথা রেডিট পোস্টে জানান ওই যুবতী। তিনি লিখেছেন, ঝগড়া বা মারামারি করে সম্পর্ক ছিন্ন করতে চাইনি আমি। তাই ‘ঘোস্টিং’-এর পথই বেছে নিলাম(এই ধরনের কাজকে ইংরাজিতে ঘোস্টিং বলা হয়।)।