আফসানার অবস্থা সংকটাপন্ন

নেপালে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের ঘটনায় নিহত ক্যাপ্টেন আবিদ সুলতানের স্ত্রী আফসানা খানমের অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। চিকিৎসার প্রয়োজনে তাঁর মাথার খুলি আলাদা করে রাখা হয়েছে।
আজ মঙ্গলবার দিকে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স অ্যান্ড হসপিটালে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

হাসপাতালটির যুগ্ম পরিচালক প্রফেসর ড. মো. বদরুল আলম মণ্ডল বলেন, ‘আফসানার ব্লাডপ্রেশার ১২০/১৮০। তাঁর কিডনি, লিভার ও হার্ট সচল রয়েছে। তবে তাঁর মস্তিষ্ক স্বাভাবিক রেসপন্স করছে না। এ অবস্থায় তাঁর ব্রেইনের ওপর প্রেশার কমাতে মাথার খুলি খুলে রাখা হয়েছে। তাঁর ব্রেইনের ওপর প্রেশার কমে গেলে খুলি পুনরায় প্রতিস্থাপন করা হবে।’

বদরুল আলম আরো বলেন, ‘আমরা আফসানার চিকিৎসা চালিয়ে যাব। আগামীকাল সকাল ১০টার দিকে তাঁর চিকিৎসার জন্য আরো একটি মেডিকেল টিম গঠন করা হবে।’

আফসানার বর্তমান অবস্থা জানতে চাইলে এই চিকিৎসক বলেন, ‘প্রথম দিনের পর গত পরশু রাতে তিনি আবার স্ট্রোক করেন। এরপর রাত ১২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত পুনরায় তাঁর অস্ত্রোপচার করা হয়।’

কোনো কোনো গণমাধ্যমের খবরে আফসানা মারা গেছেন উল্লেখ করে সে সম্পর্কে জানতে চান সাংবাদিকরা। জবাবে ড. মো. বদরুল আলম মণ্ডল বলেন, ‘কেউ ন্যাচারেলি ডেড না হওয়া পর্যন্ত আমরা তাঁকে ডেড বলব না।’
গত ১২ মার্চ কাঠমান্ডুতে ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয় ইউএস-বাংলার বিমান। এ সময় ক্রু, যাত্রীসহ মোট ৭১ আরোহী ছিলেন বিমানে। তাঁদের মধ্যে ২৬ বাংলাদেশিসহ ৫১ জন নিহত হন। অন্য তিন বাংলাদেশির লাশ এখনো শনাক্ত না হওয়ায় নেপাল থেকে আনা যায়নি।

নেপালে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের ঘটনায় নিহত ক্যাপ্টেন আবিদ সুলতানের স্ত্রী আফসানা খানমের অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। চিকিৎসার প্রয়োজনে তাঁর মাথার খুলি আলাদা করে রাখা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দিকে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স অ্যান্ড হসপিটালে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

হাসপাতালটির যুগ্ম পরিচালক প্রফেসর ড. মো. বদরুল আলম মণ্ডল বলেন, ‘আফসানার ব্লাডপ্রেশার ১২০/১৮০। তাঁর কিডনি, লিভার ও হার্ট সচল রয়েছে। তবে তাঁর মস্তিষ্ক স্বাভাবিক রেসপন্স করছে না। এ অবস্থায় তাঁর ব্রেইনের ওপর প্রেশার কমাতে মাথার খুলি খুলে রাখা হয়েছে। তাঁর ব্রেইনের ওপর প্রেশার কমে গেলে খুলি পুনরায় প্রতিস্থাপন করা হবে।’
বদরুল আলম আরো বলেন, ‘আমরা আফসানার চিকিৎসা চালিয়ে যাব। আগামীকাল সকাল ১০টার দিকে তাঁর চিকিৎসার জন্য আরো একটি মেডিকেল টিম গঠন করা হবে।’

আফসানার বর্তমান অবস্থা জানতে চাইলে এই চিকিৎসক বলেন, ‘প্রথম দিনের পর গত পরশু রাতে তিনি আবার স্ট্রোক করেন। এরপর রাত ১২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত পুনরায় তাঁর অস্ত্রোপচার করা হয়।’

কোনো কোনো গণমাধ্যমের খবরে আফসানা মারা গেছেন উল্লেখ করে সে সম্পর্কে জানতে চান সাংবাদিকরা। জবাবে ড. মো. বদরুল আলম মণ্ডল বলেন, ‘কেউ ন্যাচারেলি ডেড না হওয়া পর্যন্ত আমরা তাঁকে ডেড বলব না।’
গত ১২ মার্চ কাঠমান্ডুতে ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয় ইউএস-বাংলার বিমান। এ সময় ক্রু, যাত্রীসহ মোট ৭১ আরোহী ছিলেন বিমানে। তাঁদের মধ্যে ২৬ বাংলাদেশিসহ ৫১ জন নিহত হন। অন্য তিন বাংলাদেশির লাশ এখনো শনাক্ত না হওয়ায় নেপাল থেকে আনা যায়নি।